আগুনের পরশমণি

বিকাল ৩টা ৫ মিনিট, চ্যানেল আই


১৯৭১ সালের মে মাস। ঢাকা শহরে অবরুদ্ধ হাজারও পরিবারের মধ্যে একটি মতিন সাহেবের পরিবার। দুই মেয়ে ওই স্ত্রীকে নিয়ে তিনি আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। তার মাঝেও স্বপ্ন দেখেন দেশ একদিন স্বাধীন হবে। রেডিওটা কানে লাগিয়ে ভয়েস অফ আমেরিকা, বিবিসি, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র শোনার চেষ্টা করেন।

এই আতঙ্কের মাঝে একদিন তাদের বাসায় এসে হাজির হয় মতিন সাহেবের বন্ধুর ছেলে বদি। বদিকে প্রথমে সহ্য করতে পারে না মতিন সাহেবের বড় মেয়ে। পরে জানা যায় সে একজন মুক্তিযোদ্ধা। ঢাকা শহরে গেরিলা যুদ্ধ করছে সে। মতিন সাহেবের পরিবার গভীর মমতায় বদিকে গ্রহণ করে নেয়।

চলচ্চিত্রে আরও দেখা যায়, বদি তার দল নিয়ে একের পর এক সফল অভিযান চালিয়ে পাকবাহিনীকে নাস্তানাবুদ করে ছাড়ছে। কিন্তু, কিছুদিনের মধ্যেই এই বাহিনীর সদস্যরা ধরা পড়তে থাকে। রাশেদুল নামের এক গেরিলাকে ধরে নিয়ে গিয়ে আঙ্গুল কেটে ফেলা হয়।

একদিন বদিও গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ফিরে আসে। তাকে সারানোর মত ডাক্তার ও ওষুধপত্রের জন্য পরদিন সকাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। এই অপেক্ষার মধ্যেই শেষ হয় চলচ্চিত্রটি।

প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদের উপন্যাস অবলম্বনে চলচ্চিত্রটি নির্মিত হয় ১৯৯৪ সালে। চলচ্চিত্রটি নির্মাণ করেন হুমায়ুন আহমেদ নিজেই। এতে অভিনয় করেছেন আসাদুজ্জামান নূর, আবুল হায়াত, বিপাশা হায়াত, ডলি জহুর, শিলা আহমেদ’সহ আরও অনেকে।

সাতদিন/এমজেড


মুভি

 >  Last ›