সোম থেকে বুধ রাত ৮টা ২০ মি:, আরটিভি

উড়ামন

রচনা: জাকির হোসেন উজ্বল
অভিনয়: জাহিদ হাসান, নওশীন, অহনা

নাটকে দেখা যাবে, সায়খুল অতি সাধারণ পরিবারের ছেলে। লেখাপড়া শেষ করার আগেই দশ বৎসর আগে বাবার রিটায়ার্ডের টাকা দিয়ে বিদেশ যায়। উদ্দেশ্যছিল ইউরোপের কোন ধনি দেশে গিয়ে নিজের অবস্থার পরিবর্তন করা। কিন্তু দালালের ক্ষপ্পরে পড়ে অনেক ঘুরে শেষ পর্যন্ত অবৈধ ভাবে থাকতে হয় দক্ষিণ আফ্রিকায়। এ জন্য তাঁকে ৫ বছরের জেলও খাটতে হয়। স্ট্রোক করে মারা যায় তার বাবা। জেল থেকে বের হয়ে এক মহিলার সাথে সায়খুলের পরিচয়। মহিলা ওকে বাড়ি দেখাশুনা করার কাজ দেন। তিনি ছিলেন বিপত্নিক। তার কোন ছেলে-মেয়েও ছিল না। অতবড় একটা বিশাল বাড়িতে তিনি একা একাই থাকতেন। একসময় মহিলা মারা গেলে সায়কুল জানতে পারে সে অনেক টাকার মালিক হয়ে গেছে। কারণ মহিলাটি মারা যাওয়ার আগে সব কিছু সায়খুলকে লিখে দিয়ে গেছে।

সায়খুল এক সময় দেশে ফিরে আসে। মূলতঃ নাটকটি শুরু হয় এখন থেকে। সায়খুল অনেকটা বোকা ধরনের মানুষ। কিন্তু একসাথে অনেক টাকার মালিক হয়ে যাওয়ায় কি করবে অনেক সময় বুঝে উঠতে পারে না। সে চেষ্টা করে রাতারাতি নিজেকে বদলে ফেলতে। ইচ্ছেমতো টাকা উড়াতে থাকে। বিদেশ থেকে ফিরেই ইচ্ছে ছিল মফস্বল ছেড়ে ঢাকা শহরে চলে আসার কিন্তু মা রাজী না হওয়ায় মূল্যের চারগুন টাকা দিয়ে সুন্দর দেখে একটা বাড়ি কিনে ফেলে সে। তারপর মাকে নিয়ে উঠে সেই বাড়িতে। আচার আচরণ, চালচলন সবকিছুর মধ্যে ব্যাপক পরিবর্তন আনতে চায়। স্বাভাবিকভাবেই সে তা পারে না। সে শুধু নিজেকে বদলেই সন্তুষ্ট না তার আশেপাশের মানুষজনকেও বদলে ফেলতে চায়। আর তা করতে গিয়ে অনেক ক্ষেতেই গুলিয়ে ফেলে। কথায় কথায় টাকা বিলিয়ে দেয়া, সাহায্য করা, দান খয়রাত করা সবকিছুতেই তার বাড়াবাড়ি থাকে। টাকার গন্ধে কয়েকজন সাগরেদ গজিয়ে যায়। তারা মোসাহেবের মতো সর্বক্ষণ লেগে থাকে তার সাথে। সায়খুলকে খুশি করার জন্য পাড়ার ক্লাবের সভাপতি করার প্রস্তাব দেয়। সায়খুল ক্লাবের উন্নয়নে অনেক দান করে। স্বাভাবিক কারণেই টাকা দিয়ে সে সবকিছু জয় করতে চায়। কিন্তু বিষয়টা পছন্দ করে না ক্লাবের বর্তমান সভাপতি নুরুমাষ্টার। কিন্তু তরুণ ছেলেপিলে সায়খুলের পক্ষ নিলে সে আর কোন উপায় খুঁজে পায় না। সায়খুলের মাঝে একটা নেতা নেতা ভাব চলে আসে। তার সাগরেদরা তাকে নেতা বানাতে উঠে পড়ে লাগে। এদিকে সায়খুলের কাছে অফুরন্ত টাকা আছে শুনে এলাকার লোকজনও ওকে সমীহ করে চলে। ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন ব্যবসা বানিজ্যের ধান্দা করতে থাকে। ব্যাংকের অফিসার তার ব্যাংকে টাকা রাখার জন্য তোয়াজ করতে থাকে। ইন্সুরেন্সের লোকজন বিভিন্ন পলিসি নিয়ে ঘাটাঘাটি করে। নেতারা দলে টানার জন্য উঠে পড়ে লাগে। আত্মীয়-স্বজন অকারণে ভীর করে তার কাছে। এই সময় সায়খুলের ক্ষমতাবানদের মতো বেফাঁস কথা বলার অভ্যাস হয়ে যায়। কিন্তু সত্য কথা। একটা বিষয় সে লক্ষ করেছে তার অনেক টাকা আছে এজন্য কেউ কিছু মনে করে না। অপমানিত হয়েও লোকজন তাকে সন্তুষ্ট রাখতে চেষ্টা করে। সায়খুল তখন মজা পায়। অনেক টাকা তাকে শুধু ক্ষমতাবানই বানায় না সত্য বলার সাহসও বাড়িয়ে দেয়। সে কাউকে কেয়ার করে না। সায়খুল ওর এই জীবন উপভোগ করে। তার টাকাকে কেন্দ্র করেই এলাকায় ঘটতে থাকে একের পর এক চমকপ্রদ ঘটনা।

জাকির হোসেন উজ্বল-এর রচনা ও জাহিদ হাসানের পরিচালনায় নাটকটি দেখা যাবে সোম থেকে বুধবার রাত ৮ টা ২০ মিনিটে। উড়ামনে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন, জাহিদ হাসান, নওশীন, অহনা, সিদ্দিকুর রহমান, শামীম জামান, কেয়া চৌধুরী প্রমুখ।

সাতদিন/এমজেড

১৩ মে ২০১৫

নাটক

 >  Last ›