সন্ধ্যা ৭টা, ১৯ মে, শিল্পকলা একাডেমি, ঢাকা

জাপান-বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনায়

‘একশ বস্তা চাল’-এর ৭১তম মঞ্চায়ন


বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি এবং ঢাকাস্থ জাপান দূতাবাসের যৌথ প্রযোজনায় মঞ্চে এসেছে নাটক ‘একশ বস্তা চাল’। নাটকটি ঢাকাস্থ বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার মূল মিলনায়তনে মঞ্চস্থ হবে। ১৬০ বছর পূর্বের জাপানের একটি বাস্তব ঘটনাকে কেন্দ্র করে তখনকার সামুরাইদের উপর ইয়োজো ইয়ামামোতো নাটকটি রচনা করেন। নাটকটি বংলায় অনুবাদ করেছেন অধ্যাপক আব্দুস সেলিম এবং নির্দেশনায় রয়েছেন নাট্যজন গোলাম সারোয়ার।


শিক্ষাই জাতির মেরুদন্ড। একটা জতির উন্নতি অবনতি নির্ভর করে তার শিক্ষার উপর। আজ আমরা অনুন্নত, পরনির্ভর হয়ে অমানবিক জীবন যাপন করছি, এর মূল কারন শিক্ষার অভাব। কথাটা বলেছিলেন জাপানের এক প্রদেশের মেয়র তোরা সাবুরো কোবাইশি।

আজ থেকে ১৬০ বছর পূর্বের দরিদ্র পিড়ীত সামুরাইদের মাঝে পার্শ্ববর্তী দেশ থেকে এক’শ বস্তা চাল সাহায্য হিসাবে এসেছিল। সেখানকার মেয়র সেই চাল বিক্রি করে স্কুল ঘর বানানোর চিন্তা করে। তিনি সামুরাইদের উদ্দেশ্যে বলেছিলেন, বাহিরের সাহায্যে একটি জাতি বাচতে পারে না। সাহায্য গ্রহন অত্যন্ত ঘৃনিত কাজ। আজ আমাদের অধঃপতনের মূলে রয়েছে শিক্ষার অভাব। এই মূল বক্তব্যের উপর ভিত্তি করে রচিত হয়েছে জাপানি নাটক একশ বস্তা চাল। বর্তমান জাপানের উন্নয়নের নেপথ্যে এ ধরনের চিন্তা শক্তি তাদের মানসিক বল জুগিয়েছে।

‘একশ বস্তা চাল’ নাটকটি ’উচিমুরা’ ও ‘কোমেহিয়াপ্পিয়ো’ নামে দুটি আন্তর্জাতিক পুরষ্কার লাভ করে। ঢাকার বিভিন্ন নাট্যদলের শিল্পীরা এ নাটকে অংশগ্রহন করেছেন। ফয়েজ জহির, জুনায়েদ ইউসুফ, সেতু, গোলাম শাহারিয়ার সিক্ত, এরশাদ হাসান, ফজলে রাব্বি সুকর্নো, জয়িতা প্রমুখ এ নাটকে অভিনয় করেছেন।

সাতদিন/এমজেড

১৯ মে ২০১৫

প্রদর্শনী

 >  Last ›