১৮ সেপ্টেম্বর বিকাল ৫টা, বাতিঘর, চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামে কবিতা পাঠের আসরে কবি জয় গোস্বামী


চট্টগ্রামের জনপ্রিয় বই বিপণন কেন্দ্র বাতিঘরের (চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব ভবন) নিয়মিত আয়োজন ‘আমার জীবন আমার রচনা’। এই আয়োজনে একজন প্রখ্যাত লেখককে আমন্ত্রণ জানানো। আমন্ত্রিত অতিথি তাঁর নিজের লেখা থেকে পাঠ করেন এবং তাঁর অভিজ্ঞতা সম্পর্কে পাঠকদের জানান। পাঠকদের নানান প্রশ্নেরও জবাব দিয়ে থাকেন আমন্ত্রিত অতিথি। এই আয়োজনের এবারের পর্বের অতিথি ভারতীয়-বাঙালি কবি জয় গোস্বামী।

প্রখ্যাত বাঙালি কবি এবং সাহিত্যিক জয় গোস্বামী’র জন্ম ১৯৫৪ সালে, কলকাতা শহরে। তিনি প্রথাগত শিক্ষার ফাঁস ছিঁড়ে বেরিয়ে এসেছিলেন স্কুলের ১১ ক্লাস পড়তে পড়তেই। তাঁর প্রথম কবিতা ‘সিলিং ফ্যান’। প্রথম কবিতা প্রকাশিত হয় তিনটি লিটিল ম্যাগাজিনে “সীমান্তে সাহিত্য”, “পদক্ষেপ” এবং “হোম শিখা”। ১৯৭৬ সালে তাঁর কবিতা দেশ পত্রিকায় প্রথম বার ছাপা হয়। পরে তিনি ঐ পত্রিকাতেই একজন সম্পাদক হিসেবে যোগ দেন।

তিনি ১৯৮৯ সালে কাব্যগ্রন্থ “ঘুমিয়েছ ঝাউপাতা”র জন্য আনন্দ পুরস্কারে ভূষিত হন, ১৯৯৭ সালে ভূষিত হন বাংলা একাডেমি পুরস্কারে “বজ্র বিদ্যুৎ ভর্তি খাতা”র জন্য এবং সাহিত্য একাডেমি পুরস্কার পান “পাগলী তোমার সঙ্গে”র জন্য। তাঁর লেখা উপন্যাসের মধ্যে রয়েছে “মনোরমার উপন্যাস”, ‘‘সেই সব শেয়ালেরা”, “সুড়ঙ্গ ও প্রতিরক্ষা” ইত্যাদি।

অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার সাহস এবং অত্যাচারিতের পাশে দাড়ানো জয় গোস্বামীর অন্যতম গুণ। গুজরাটের দাঙ্গার, সিঙ্গুর এবং নন্দীগ্রামের জমি বাঁচাও আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে তাঁর কবিতায় উঠে এসেছে শাসকগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে ধিক্কার।

সাতদিন/এমজেড

১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫

সঙ্গীত

 >  Last ›