রাত ১১টা, ৮ মে এটিএন বাংলা

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ছোট গল্প অবলম্বনে

টেলিফিল্ম ‘দেনা পাওনা’

চিত্রনাট্য ও পরিচালনা: অরুনা বিশ্বাস
নাট্যরূপ: মান্নান হীরা
অভিনয়: চয়ন্ত চট্রোপাধ্যায়, প্রভা, ইউসুফ রাসেল, আসিফ

পাঁচ ছেলের পর যখন এক কন্যা জন্মিল তখন বাপমায়ে অনেক আদর করিয়া তাহার না রাখিল নিরুপমা। সেই নিরুপমার এখন বিবাহের প্রস্তাব চলিতেছে। তাহার পিতা রামসুন্দর মিত্র অনেক খোঁজ করেন কিন্তু পাত্র কিছুতেই মনের মতন হয় না। অবশেষে মস্ত এক রায়বাহাদুরের ঘরের একমাত্র ছেলেকে সন্ধান করিয়া বাহির করিয়াছেন। রায় বাহাদুরের পৈত্রিক বিষয়-আশায় যদিও অনেক হ্রাস হইয়া আসিয়াছে কিন্তুু বনেদি ঘর বটে। বরপক্ষ হইতে দশ হাজার টাকা পণ এবং বহুল দানসামগ্রী চাহিয়া বসিল। রামসুন্দর কিছুমাত্র বিবেচনা না করিয়া তাহাতেই সম্মত হইলেন; এমন পাত্র কোনোমতে হাতছাড়া করা যায় না। কিন্তুু কিছুতেই আর টাকার জোগাড় হয় না। নানাভাবে অনেক চেষ্টাতেও হাজার ছয়-সাত বাকি রহিল। এ দিকে বিবাহের দিন নিকট আসিয়াছে।অবশেষে বিবাহের দিন উপস্থিত হইল। নিতান্ত অতিরিক্ত সুদে একজন বাকি টাকাটা ধার দিতে স্বীকার করিয়াছিল কিন্তুু সময়কালে সে উপস্থিত হইল না। বিবাহ সভায় একটা তুমুল গোলযোগ বাধিয়া গেল। রামসুন্দর আমাদের রায়বাহাদুরের হাতে-পায়ে ধরিয়া বলিলেন ‘শুভকার্য সম্পন্ন হইয়া যাক’ আমি নিশ্চই টাকাটা শোধ করিয়া দিব। রায়বাহাদুর বলিলেন ‘টাকা হাতে না পাইলে বর সভাস্থ করা যাইবে না’।এই দুর্ঘটনায় অন্তঃপুরে একটা কান্না পড়িয়া গেল। এই গুরুতর বিপদের যে মূল কারণ সে চেলি পড়িয়া, গহনা পরিয়া, কপালে চন্দন লেপিয়া, চুপ করিয়া বসিয়া আছে। ভাবী শ্বশুরকুলের প্রতি যে তাহার খুব একটা ভক্তি কিংবা অনুরাগ জন্মিতেছে, তাহা বলা যায় না। ইতিমধ্যে একটা সুবিধা বইল। বর সহসা তাহার পিতৃদেবের অবাধ্য হইয়া উঠিল। সে বাপকে বলিয়া বসিল, ‘ কেনাবেচা-দরদামের কথা আমি বুঝি না, বিবাহ করিতে আসিয়াছি বিবাহ করিয়া যাইব।

এটি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ছোট গল্প দেনা-পাওনার অংশবিশেষ। এই গল্প অবলম্বনেই রবীন্দ্র জয়ন্তিতে এটিএন বাংলায় রাত ১১টায় প্রচার হবে টেলিফিল্ম ‘দেনা-পাওনা’। টেলিফিল্মটির নাট্যরূপ দিয়েছেন মান্নান হীরা। চিত্রনাট্য ও পরিচালনা অরুনা বিশ্বাস। টেলিফিল্মটিতে অভিনয় করেছেন চয়ন্ত চট্রোপাধ্যায়, প্রভা, ইউসুফ রাসেল, আসিফ প্রমুখ।

৮ মে ২০১৫

নাটক

 >  Last ›