সন্ধ্যা ৬টা ৪৫ মি, ২৯ মে, এনটিভি

বন্ধু তোমারই খোঁজে’র অতিথি

কবি আসাদ চৌধুরী

উপস্থাপনা: ইভান সাইর
পরিকল্পনা ও প্রযোজনা: জাহাঙ্গীর চৌধুরী


জীবিত লিজেন্ডদের পেছনে ফেলে আসা বন্ধুর খোঁজে এনটিভির নতুন ধারার অনুষ্ঠান ‘বন্ধু তোমারই খোঁজে’।অনুষ্ঠানের প্রতি পর্বে একজন লিজেন্ডের জীবনে বন্ধুর গুরুত্ব, তাদের নিয়ে স্মৃতিচারণ ইত্যাদি উপস্থাপন করা হয়। আমন্ত্রিত অতিথির জীবনে ফেলে আসা সময়গুলোতে বন্ধুদের স্মৃতি, জীবনে বন্ধুদের ভূমিকা, তার কাছে বন্ধুত্ব কি, কাজের ক্ষেত্রে বন্ধুত্ব, বন্ধুত্ব নিয়ে নস্টালজিয়া- এসব দর্শকদের কাছে তুলে ধরা হয় ‘বন্ধু তোমারই খোঁজে’ অনুষ্ঠানে।

এ পর্বে অতিথি হয়ে এসেছেন কবি আসাদ চৌধুরী।

১৯৪৩ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার উলানিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। সাহিত্য চর্চার পাশাপাশি মনোগ্রাহী টেলিভিশন উপস্থাপনা ও আবৃত্তির মাধ্যমেও মানুষের মন জয় করেছেন এই সর্বজনশ্রদ্ধেয় সাহিত্যিক। বাংলা একাডেমি পুরস্কার, একুশে পদক, কবিতা পরিষদ পুরস্কার’সহ বহু উপাধী ও সম্মানে ভূষিত হয়েছেন তিনি। বর্তমানে বাংলা সাহিত্যের গুরুত্বপূর্ণ জীবিত কবিদের মধ্যে তাঁর নাম বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।

বরিশালের বিখ্যাত ব্রজমোহন কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক সম্পন্ন করেন কবি আসাদ চৌধুরী। এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি। ব্রাহ্মণবাড়িয়া কলেজের শিক্ষক হিসেবে কর্ম জীবন শুরু করেন তিনি। পরবর্তীতে সাংবাদিকতাকেই পেশা হিসেবে নেন। বাংলা একাডেমিতে চাকরি করেছেন দীর্ঘকাল এবং একাডেমির পরিচালক হিসেবেই অবসর গ্রহণ করেণ কবি আসাদ চৌধুরী।

কবি আসাদ চৌধুরীর লেখা কাব্যগ্রন্থের মধ্যে রয়েছে—‘তবক দেওয়া পান’, ‘জলের মধ্যে লেখাজোখা’, ‘মধ্য মাঠ থেকে’, ‘মেঘের জুলুম পাখির জুলুম’, ‘ভালোবাসার কবিতা’, ‘নদীও বিবস্ত্র হয়’, ‘বাতাস যেমন পরিচিত’, ‘ঘরে ফেরা সোজা নয়’ ইত্যাদি। তাঁর সম্পাদনায় প্রকাশিত হয় ইতিহাস বিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ গ্রন্থ ‘বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ’। তিনি শিশুদের জন্যও প্রচুর বই লিখেছেন। এ ছাড়া রয়েছে তাঁর বেশ কিছু প্রবন্ধ। অনুবাদ সাহিত্যেও কবি আসাদ চৌধুরী অবদান রেখেছেন।

অনুষ্ঠানটি প্রযোজনা করছেন জাহাঙ্গীর চৌধুরী। উপস্থাপনা করছেন ইভান সাইর। প্রচার হচ্ছে প্রতি শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা ৪৫ মিনিটে।

২৯ মে ২০১৫

আড্ডা ও আলোচনা

 >  Last ›