রাত ১২টা ২ মি, ৩ জুলাই, মাছরাঙা টিভি

বিরতিহীন নাটক: মোহ

রচনা: রুহুল রবিন খান
পরিচালনা: শাহীন স্বাধীন
অভিনয়ে: শশী, নিশো


মাছরাঙা টেলিভিশনে প্রচার হবে নাটক ‘মোহ’। নাটকের গল্পে দেখা যায়, রিকশাচালক কুতুব গুণী এবং রূপবতী স্ত্রী রানুকে পেয়ে ভুলে যায় সব অভাব এবং অমানবিক সংগ্রামী জীবনের কথা। অন্যদিকে রানু সত-মায়ের সংসারে মানসিকভাবে নিগৃহীত জীবন থেকে মুক্তি পেয়ে হতদরিদ্র কুতুবের সংসারে এসে অনুভব করে স্বর্গীয় শান্তি। ফলে শত অভাব-অনটনের মাঝেও পরম আনন্দে দিনাতিপাত করতে থাকে তারা। কিন্তু তাদের সেই আনন্দে ছন্দপতন ঘটে যখন গ্রামের মাতবরের নাতি আবীর পড়াশোনা শেষ করে গ্রামে বেড়াতে আসে। এভাবেই এগিয়ে যায় গল্প। আবীরকে গ্রাম ঘুরে দেখানোর দায়িত্ব নেয় কুতুব।


একদিন কুতুবকে ডাকতে গিয়ে আবীর আবিষ্কার করে রানুকে। রানুর সৌন্দর্যের মোহে পড়ে যায় সে। প্রতিনিয়ত আবীর নানাভাবে রানুকে তার দিকে প্রলুব্ধ করতে চেষ্টা করে। একসময় দরিদ্র, সহজ-সরল রানু সহজেই মজে যায় শিক্ষিত, হ্যান্ডসাম আবীরের প্রেমে। ধীরে ধীরে কুতুবের কাছ থেকে দূরে সরে যায় রানু। বউয়ের এমন পরিবর্তনকে নিজের অক্ষমতা বলে ভাবে কুতুব। একদিন কুতুব অনেক কষ্টে অর্জিত টাকা দিয়ে নিজের জন্য কিছু না কিনে বউয়ের জন্য একটা শাড়ি নিয়ে আসে, যা রানুর মনে গভীর দাগ কাটে। দোটানায় অস্থির রানু থিতু হতে যখনই আবীরকে বিয়ের প্রস্তাব দেয় তখন আবীরের আসল রূপ বের হয়ে আসে। রানুর বুঝতে বাকি থাকে না আবীর কিসের মোহে তার কাছে এসেছে। দেরিতে হলেও রানুর বুঝতে অসুবিধা হয় না রিকশাচালক কুতুবই তার আসল ভালোবাসার মানুষ। কুতুবের ভালোবাসার কাছে পরাজিত হয়ে আবীরের দেয়া শাড়ি পুড়িয়ে পাপমোচন করার চেষ্টা করে অস্থির রানু।

রুহুল রবিন খানের রচনায় নাটকটি পরিচালনা করেন শাহীন স্বাধীন। বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন শশী, নিশো, সৈকত প্রামাণিক প্রমুখ।

সাতদিন/এমজেড

৩ জুলাই ২০১৫

নাটক

 >  Last ›