বিকাল ৪টা, ১৩ আগস্ট, শিল্পকলা একাডেমি, ঢাকা

তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনির স্মরণে

আলোচনা ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনী

 

অকাল প্রয়াত চলচ্চিত্রনির্মাতা তারেক মাসুদ ও চিত্রগ্রাহক মিশুক মুনিরের ৪র্থ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচনা অনুষ্ঠান ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে যৌধভাবে ফেডারেশন অব ফিল্ম সোসাইটিজ অব বাংলাদেশ এবং বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি। তারেক মাসুদের বিখ্যাত চলচ্চিত্র ‘রানওয়ে’র প্রদর্শনীর মধ্য দিয়ে শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় সংগীত ও নৃত্যকলা মিলনায়তনে এই আয়োজন শুরু হবে ১৩ আগস্ট বিকাল ৪টায়। এরপর সন্ধ্যা ৬টায় প্রদর্শিত হবে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘নরসুন্দর’। সন্ধ্যা ৬টা ৩০ মিনিটে তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনির’সহ ২০১১ সালের মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত চলচ্চিত্রকর্মীদের স্মরণে মঙ্গলপ্রদীপ প্রজ্জ্বলন করা হবে। সন্ধ্যা ৬টা ৪৫ মিনিটে স্মরণ আলোচনা এবং সবশেষে সন্ধ্যা ৭টা ৩০ মিনিটে শিল্পী এস এম সুলতানকে নিয়ে নির্মিত তারেক মাসুদের প্রামাণ্যচিত্র ‘আদম সুরত’-এর প্রদর্শনীর মধ্য দিয়ে এই আয়োজনের সমাপ্তি হবে।

স্মরণ আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন ফেডারেশন অব ফিল্ম সোসাইটিজ অব বাংলাদেশের সভাপতি স্থপতি লাইলুন নাহার স্বেমি, অগ্রজ চলচ্চিত্রকার মোরশেদুল ইসলাম, চলচ্চিত্র গবেষক ড. সাজেদুল আউয়াল, চলচ্চিত্র নির্মাতা জাঈদ আজিজ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক নাট্যজন লিয়াকত আলী লাকী। প্রারম্ভিক আলোচনা এবং বক্তৃতা সঞ্চালনা করবেন ফেডারেশন অব ফিল্ম সোসাইটিজ অব বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক বেলায়াত হোসেন মামুন।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালের ১৩ আগস্ট মানিকগঞ্জের অদূরে ঢাকা আরিচা মহাসড়কে এক ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান তারেক মাসুদ, মিশুক মুনির’সহ বেশ কজন চলচ্চিত্রকর্মী। এ সময় চলচ্চিত্র ‘কাগজের ফুল’-এর শুটিং স্পট দেখে ফিরছিলেন তারেক মাসুদ ও তাঁর টিম। একই মাইক্রোবাসে থাকা শিল্পী ঢালী আল মামুন এবং ক্যাথরিন মাসুদও গুরুতর আহত হন।

সাতদিন/এমজেড

১৩ আগস্ট ২০১৫

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

 >